Destan

দেস্তান ভলিউম ২২ বাংলা সাবটাইটেল অনুবাদ মিডিয়া

দেস্তান ভলিউম ২২ বাংলা সাবটাইটেল অনুবাদ মিডিয়া

বিরোধি পক্ষ তুর্কিদেরকে বর্বর ও সস্ত্রাজ্জীকে অত্যন্ত উদার হিসেবে দাবি করে । একজন বক্তা এ বিতর্কে আরো একটু এগিয়ে ঘোষণা করে যে সম্রাজ্ঞী কনস্টান্টিনোপল দখল করে ইউরোপ থেকে তুর্কিদেরকে বিতাড়িত করলে তা মানবজাতির জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে । সরকারপ্রধান এসব বক্তব্যকে আমল না দিয়ে দুর্বল জাতির প্রতি সম্রাঙ্জীর আচরণকে ব্যাখ্যা করে তুলে ধরে এর প্রতিহত না করা হলে ইউরোপে রাশিয়ার নৌবাহিনী আগ্রাসী শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হবে। কৃষ্ণসাগর, বসফরাস হয়ে ভূমধ্যসাগরে তাণ্ডব চালাবে তারা ।

কিন্ত এতদসত্েও সংসদ ও সাধারণ জনগণ পিটকে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে তার যুদ্ধনীতি পরিবর্তন করার জন্য । যাই হোক, এত কিছু সত্ত্বেও পিট সমর্থ হন জনমনে এই ধারণা প্রতিষ্ঠিত করতে যে, ইউরোপে শক্তির ভারসাম্য রক্ষার প্রধান উপায় হলো রাশিয়া সামাজ্যকে সম্প্রসারিত হতে বাধা দেয়া ও অটোমান সাম্রাজ্যকে ক্ষয় হয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করা ।

উভয় সীমান্তে অদক্ষ সেনাবাহিনী নিয়ে একের পর এক পরাজয়ে তুর্কিরাও শান্তি আলোচনার জন্য প্রস্তুত হয়ে ওঠে। একই ভাবে ক্যাথেরিন পোলান্ডের ওপর নিজের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বিভক্তিতে রাজি হয়ে ওঠে । ১৭৯১ সালে অনুষ্ঠিত আলোচনার টেবিলে দিনিস্টোরের পশ্চিমে জয় করে নেয়া সব ভূমি পরিত্যাগ করতে রাজি হয়। কিন্তু তার প্রধান উদ্দেশ্য সফল করে দিনিয়েপার ও বাগের মধ্যবর্তী অঞ্চল লাভ করে ক্যাথেরিন।

See also  অনুবাদ মিডিয়া দেস্তান ভলিউম ২১ বাংলা সাবটাইটেল

এর মাধ্যমে কৃষ্ণসাগরে রাশিয়ার আধিপত্য প্রতিষ্ঠিত হয়, যার রণপোতবহর ছিল তুর্কিদেরকে ছাড়িয়ে। এছাড়া স্থলপথে পোলান্ডের মধ্য দিয়ে আক্রমণ করতে পারবে ক্যাথেরিন। “মহতী নকশা”-র শুরু হয় ১৭৯৬ সালে। কিন্তু হঠাৎ করেই মৃত্যুবরণ করলে অটোমান সাম্রাজ্য আরো একবার স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলার সুযোগ পায়।এরই মাঝে ইতিহাসের গতিপথ বদলাবার সময় হয়ে গেছে। পশ্চিমে শুধু নয়, পূর্বের ওপরেও পড়ে এর প্রভাব । ফরাসি বিগ্রব।

পুনঃসংস্কারকাল

১৭৮৯ সালে ঠিক ফরাসি বিপ্লব সংঘটিত হওয়ার বছরেই তুর্কি সালতানাতে অভিষেক ঘটে তরুণ সুলতান তৃতীয় সেলিমের । তুর্ক-রাশীন যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর নিজের সক্রিয় উদ্যোগ দিয়ে টিউলিপ যুগে শুরু হওয়া পুনঃসংস্কার কার্যক্রমের ফলপ্রসূতায় আত্মনিয়োগ করেন সুলতান।

ফরাসি বিপ্লব এসব পরিকল্পনার পালে নতুন হাওয়া জোগায় । খ্রিস্টান ইউরোপে ফরাসি গণজাগরণ শুরু হলেও সামাজিকভাবে এটি ছিল খ্রিস্ট থেকে বিছিন্ন এবং অ-ধার্মিক এমনকি চারিত্রিকভাবে অ-ধ্রিস্টান। এটি ছিল একটি ধর্মনিরপেক্ষ আন্দোলন।

এমন একসময়ে অটোমান সাম্রাজ্যের সিংহাসনে অধিষ্ঠিত হন সেলিম, যখন সাম্রাজ্যের ক্ষয়কাল চলছে। হাঙেরি, ট্রান্সসিলভ্যানিয়া, ক্রিমিয়া এবং আজভ হারালেও তুর্কিদের অধীনে ছিল বেশ বড় একটি অংশ। দীর্ঘ সময়ের জন্য স্থবির থাকলেও আভ্যন্তরীণ অনৈক্যর কারণে টুকরো টুকরো হয়ে পড়ছে সাম্রাজ্য । নিজের ভূখণ্ডের ওপর সুলতানের আধিপত্য কমে যাচ্ছে স্থানীয় পাশাদের বিশ্বাসঘাতকতায়, কর ও জীবন-মৃত্যু নিয়ে তাদের ক্ষমতার অপব্যবহারে ও সাধারণভাবেই অযোগ্য কর্মচারীদের কল্যাণে ।

See also  দেস্তান ভলিউম ২৬ বাংলা সাবটাইটেল অনুবাদ মিডিয়া

এর ওপরে আবার বিভিন্ন প্রদেশে আরবীয় মরুভূমিতে শক্তিশালী ওহাবিয়ারা বিদ্বোহে ইন্ধন জোগানো শুরু করেছে; সিরিয়া ও প্যালেস্টাইনে ড্ুজ; মিশরে মামলুক; বিভিন্ন খ্রিস্টান প্রজাদের মাঝে স্বাধীনতার আকাঙ্া প্রভৃতি হুমকি বিদ্রোহের কারণ হিসেবে ওঠে আসছে।

এছাড়াও সাম্রাজ্যজুড়ে সামন্তবাদী ইউরোপের ন্যায় বিশৃঙ্খলা বিরাজমা হয়ে অধীনস্তদের দমন নিপীড়ন ও সুলতানকে অগ্রাহ্য করত। কৃষক ও সাধারণ জনগণের মাঝে দরিদ্রতা ও দুর্দশার অন্ত ছিল না। কেন্দ্রীয় সরকারের আর্থিক সমস্যার সমাধানও হয়ে পড়ে অগ্রতুল। এই পরিস্থিতির মোকাবেলা

করার জন্য অন্ততপক্ষে কেন্দ্রে পশ্চিমা ধাচে পুনঃসংস্কারের উদ্যোগ নেন সেলিম। এখন শুধু দেখতে হবে যে এ্রতিহ্যবাহী অটোমান প্রতিষ্ঠানগুলো কতটা বাধা হয়ে দাঁড়ায় পরিবর্তনের পথে । রাশিয়ার সাথে শান্তি সমাপ্তির পর শুরু করা সেলিমের পুনঃসংস্কার কার্যক্রমকে সামগ্রিকভাবে নাম দেয়া হয় নিজাম-ই-জেদিদ বা দ্য নিউ অর্ডার। নতুন শৃঙ্খলা আনয়নের এ নামকরণ নেয়া হয় বিপ্লবের পর ফরাসিদের অনুকরণে ।

১৭৯১ সালে দানিয়ুবের তীর থেকে সেনাবাহিনী তখনো ফিরে আসেনি, সুলতান বাইশজন উচ্চপদস্থ কর্মচারী, সাধারণ, সামরিক এবং ধর্মীয় এমনকি এর মাঝে দুজন খ্রিস্টান কর্মচারীও ছিল; এদের নির্দেশ দেন তার সম্মুখে প্রতিবেদন পেশ করার জন্য। এরপর এসব প্রতিবেদন বিভিন্ন সভা ও কমিটিতে মুক্তভাবে আলোচনা করার পর, পূর্বে যা কখনো করা হয়নি_ রাষ্ট্রের উদ্দেশ্য ধার্য করা হয়। পরবর্তী দুবছরজুড়ে এর পরিকল্পনা করে সুলতানের নতুন শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠার কাজ সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। এতে শুধু সামরিক নয়, নাগরিক আইন পুনঃসংস্কার করা হয়; অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের ওপর বিশেষ জোর দেয়া হয়।

See also  দেস্তান ভলিউম ২৫ বাংলা সাবটাইটেল অনুবাদ মিডিয়া

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button